মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদে ডেমোক্রাট আইন প্রণেতার মুক্তিযুদ্ধে হিন্দু গণহত্যা প্রসঙ্গ উত্থাপন

38

রানা দাশগুপ্ত।। অর্ধশত বছর আগে বাঙালি হিন্দু সম্প্রদায়কে টার্গেট করে যে গণহত্যা চালানো হয়েছিল বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে, তাদের উত্তরাধিকাররা আজো পাকিস্তানের ক্ষমা চাওয়ার জন্যে লড়াই করছে। মার্কিন জনগণ তাদের সঙ্গে একাত্ম।

মার্কিন আইন প্রণেতা ডেমোক্রেটিক দলের নেতা শীলা জ্যাকসন লী, যিনি ওই প্রতিনিধি পরিষদে পাকিস্তানি ককাসের কো-চেয়ারম্যান, গত ২৩ মার্চ প্রতিনিধি পরিষদে এক ভাষণে এই মন্তব্য করেন। তিনি এই প্রসঙ্গে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের কাছে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একাত্তরের গণহত্যাকে স্বীকার করে নিয়ে তজ্জন্য ক্ষমা চাওয়ার দাবির কথা পুনরুল্লেখ করেন।

ধর্মীয় স্বাধীনতাকে মানবাধিকারের অন্যতম পবিত্র অংশ হিসেবে অভিহিত করে লী প্রতিনিধি পরিষদে বলেন, আজকের বাংলাদেশে ৫০ বছর আগে অপারেশন সার্চলাইটের নামে পাকিস্তানি সেনাবাহিনী দশমাস ধরে হিন্দু সম্প্রদায়কে টার্গেট করে যে কুড়ি লাখ হিন্দু বাঙালিকে নিধন করেছে তাদের স্মরণ করি এবং সম্মান জানাই।

তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধে প্রায় ৩০ লাখ লোককে হত্যা করা হয়েছে। দুই লাখ নারী ধর্ষিত হয়েছে। এক কোটি লোক প্রতিবেশী ভারতে শরণার্থী হিসেবে আশ্রয় নিয়েছে। মার্কিন আইন প্রণেতার ভাষায় ‘আমি ঘৃণ্য মানবতাবিরোধী অপরাধের যারা শিকার হয়েছেন তাদের প্রতি সম্মান জানাই।’

মিস লী এ প্রসঙ্গে ১৯৭১ সালের ২৮ মার্চ ঢাকায় অবস্থানরত মার্কিন কন্সাল জেনারেল আর্চার কে ব্লাডের স্টেট ডিপার্টমেন্টে ‘বাছাই করে গণহত্যা’ শীর্ষক তারবার্তা তুলে ধরেন।