বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির বর্ধিত সভার (১ জানুয়ারি, ২০২১) শোক প্রস্তাব

15

বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির অদ্যকার এই বর্ধিত সভা গভীর শোক ও শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করছে সংগঠনের দু’জন সভাপতি বীরউত্তম মেজর জেনারেল (সি আর দত্ত) ও  হিউবার্ট গোমেজকে যারা বিগত বছরে আমাদের ছেড়ে পরপারে চলে গেছেন। জেনারেল দত্ত একজন অকুতোভয় মুক্তিযোদ্ধা, সময়ের সাহসী সৈনিক। সংগঠনের প্রতিষ্ঠাকালীন সময় থেকে আমৃত্যু তিনি ধর্মীয় বৈষম্যের বিরুদ্ধে আপোষহীন সংগ্রামে রত থেকে দেশমাতৃকার সেবা করে গেছেন। অন্যদিকে, হিউবার্ট গোমেজ দীর্ঘকাল সংগঠনের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য থেকে, পরবর্তীতে সাবেক সাংসদ ও মন্ত্রী প্রমোদ মানকিন এর মৃত্যুর পর অন্যতম সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন, এ দেশের মানবাধিকারের আন্দোলনকে সমৃদ্ধ ও গতিশীল করেছেন। দেশ, জাতি ও এদেশের নির্যাতিত-নিপীড়িত ধর্মীয়-জাতিগত সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠীর প্রতি এই দু’জনের যে অমূল্য অবদান আজকের এ সভা তা বিন¤্র চিত্তে স্মরণ করছে এবং শোক সন্তপ্ত পরিবার পরিজনের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানাচ্ছে।

আজকের এই বর্ধিত সভা শোকাহত চিত্তে স্মরণ করছে ঢাকা উত্তর জেলা কমিটির সভাপতি রূপচান বিশ^াস, ঢাকা মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক ভাস্কর চৌধুরী, নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার গোপীনাথ দাশ, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা শাখার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মিলন কান্তি ধর, চট্টগ্রাম মহানগর কমিটির সভাপতির মন্ডলীর অন্যতম সদস্য বাবুল দত্ত ও সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য চন্দন দত্ত, রাঙ্গামাটি জেলা শাখার সভাপতি ডাঃ শিব প্রসাদ মিক্রকে। প্রয়াতদের প্রায় সবার মৃত্যু ঘটেছে দুরারোগ্য করোনা মহামারীতে। এরা সবাই আমৃত্যু আন্তরিক সততায় ও নিষ্ঠায় সংগঠন ও মানবাধিকারের আন্দোলনকে দেশব্যাপী ছড়িয়ে দেয়ার যে মহৎ কর্মসম্পাদন করেছেন আজকের এই সভা তা স্মরণ করছে গভীর শ্রদ্ধায়। সভা প্রয়াতদের বিদেহী আত্মার সদগতি কামনা করছে এবং তাদের শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানাচ্ছে।

অদ্যকার এই সভা সুগভীর শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতায় স্মরণ করছে দেশের বরেণ্য বুদ্ধিজীবী ড. আনিসুজ্জামান, স্থপতি অধ্যাপক জামিলুর রেজা চৌধুরী, সাংবাদিক কামাল লোহানী ও খন্দকার মনিরুজ্জামান, আইনজীবী অ্যাটর্নি জেনারেল এ্যাড. মাহবুবে আলম, অভিনেতা আলী যাকের, বীর মুক্তিযোদ্ধা কর্ণেল আবু ওসমান চৌধুরী, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি তারেক আলীকে। মহামারী করোনায় জাতির এসব শ্রেষ্ঠ সন্তানদের হারিয়ে দেশ ও জনগণের অপূরণীয় ক্ষতি সাধিত হয়েছে যা সহজে পূরণ হবার নয়।