বাংলাদেশে রাষ্ট্রীয় শোক পালিত প্রণববাবু আমাদের অভিভাবক ছিলেন: শোকবার্তায় শেখ হাসিনা।

5

।। নিজস্ব বার্তা পরিবেশক।।
বাংলাদেশের অকৃত্রিম বন্ধু প্রণব মুখোপাধ্যায়ের মৃত্যুতে শ্রদ্ধা জানাতে বুধবার ২ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশে এক দিনের রাষ্ট্রীয় শোক পালিত হয়। এ উপলক্ষে আজ বাংলাদেশের সব সরকারি, আধাসরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান এবং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ সব সরকারি ও বেসরকারি ভবন এবং বিদেশ¯’ বাংলাদেশ মিশনসমূহে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হয়। ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে বিশেষ প্রার্থনার আয়োজন করা হয়।
এক শোকবার্তায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, প্রণব মুখোপাধ্যায়ের মৃত্যুতে ভারত হারালো একজন বিজ্ঞ ও দেশপ্রেমিক নেতাকে। আর বাংলাদেশ হারালো এক আপনজনকে। তিনি উপমহাদেশের রাজনীতিতে এক উজ্জ্বল নক্ষত্র হয়ে বেঁচে থাকবেন।
প্রণববাবুর মৃত্যুতে শোকে আপ্লুত ও স্মৃতিকাতর হয়ে পড়েন প্রধানমন্ত্রী। প্রণব মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে বঙ্গবন্ধু পরিবার ও শেখ হাসিনার নিজের বহু স্মৃতি স্মরণ করেন শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের মহান মৃুক্তিযুদ্ধে একজন রাজনীতিবিদ ও আমাদের পরম সুহৃদ হিসেবে প্রণববাবুর অনন্য অবদান কখনো বিস্তৃত হওয়ার নয়। আমি সব সময় মুক্তিযুদ্ধে তাঁর অসামান্য অবদান শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করি।’ প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার পর ভারতে নির্বাসিত জীবনে প্রণববাবু আমাদের সব সময় সহযোগিতা করেছেন। এমন দুঃসময়ে তিনি আমার পরিবারের খোঁজখবর রাখতেন, যে কোনো প্রয়োজনে পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন। দেশে ফেরার পরও প্রণব মুখোপাধ্যায় সহযোগিতা ও উৎসাহ দিয়েছেন। তিনি আমাদের অভিভাবক ও পারিবারিক বন্ধু। যে কোনো সংকটে তিনি সাহস জুগিয়েছেন।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কাছে সোমবারই চিঠি পাঠিয়েছেন। চিঠিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের মৃত্যুর খবর পেয়ে আমি গভীরভাবে শোকাহত। এই দুঃখজনক সময়ে তার পরিবারের সঙ্গে আমিও তার আত্মার শান্তির জন্য প্রার্থনা করছি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ভারতের একজন বিদগ্ধ রাষ্ট্রনায়ক এবং দক্ষিণ এশিয়ার শ্রদ্ধাভাজন নেতা হিসেবে প্রণব মুখোপাধ্যায় সবার কাছে শ্রদ্ধা ও সম্মানের পাত্র ছিলেন। তিনি বলেন, ভারতের জনগণের কল্যাণে ‘ভারতরত্ন প্রণব মুখোপাধ্যায়ের নিরলস কর্মকান্ড শুধু ভারত নয়, এই অঞ্চলের দেশগুলোর আগামি প্রজন্মের নেতাদের প্রেরণা জোগাবে।
শেখ হাসিনা বলেন, প্রণব মুখোপাধ্যায় বাংলাদেশের একজন ‘প্রকৃত বন্ধু’ ছিলেন। আমাদের দেশের জনগণ তাকে উ”চ মর্যাদা দেয় এবং ভালোবাসে। তিনি বলেন, দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক জোরদারে বিশেষ করে ভারতের ১৩তম রাষ্ট্রপতি হিসেবে তার মেয়াদকালে দৃঢ় সমর্থন ও অবদান গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে চির স্মরণীয় হয়ে থাকবে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে অসামান্য অবদানের জন্য বাংলাদেশ সরকার ২০১৩ সালে তাকে ‘বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ সম্মাননা’ প্রদান করে।
তিনি বলেন, বাংলাদেশের সরকার ও জনগণ এবং আমার নিজের পক্ষ থেকে এই প্রবীণ নেতার মৃত্যুতে অপূরণীয় ক্ষতির জন্য ভারতের সরকার ও জনগণের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা ও শোক জানাচ্ছি। আমরা তার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করছি।