ঢাকার উপকন্ঠে চলন্ত বাসে তরুণীকে গণধর্ষণ, চালকসহ আটক ছয়

9

প্রতিবেদক।। রাজধানী ঢাকার কাছে সাভারের আশুলিয়ায়  চলন্ত বাসে এক তরুণীকে দলবদ্ধভাবে ধর্ষণের অভিযোগে ছয় জনকে আটক করেছে পুলিশ। আর ঘটনার শিকার তরুণীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, আশুলিয়া সিএন্ডবি বাইপাস সড়কে শুক্রবার (২৮ মে) রাত সাড়ে দশটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। নিউ গ্রামবাংলা পরিবহনের বাসের চালক হেলপার ও সুপারভাইজার সহ ছয় জনকে এ ঘটনায় আটক করেছে পুলিশ। বাসটিও জব্দ করা হয়েছে।

আশুলিয়া থানার কর্তব্যরত পুলিশ কর্মকর্তা জানান, ধর্ষণের শিকার তরুণী মানিকগঞ্জ থেকে নারায়ণগঞ্জের বাসে উঠেছিলেন, কিন্তু রাত আটটার দিকে জাতীয় স্মৃতি সৌধের কাছে নবীনগর বাস স্ট্যান্ডে তাকে বাস থেকে নামিয়ে দেয়া হয়। এরপর তিনি নিউ গ্রামবাংলা পরিবহন নামে একটি বাসে উঠেন টঙ্গী যাওয়ার উদ্দেশ্যে। পথে আশুলিয়া গরুর হাট এলাকার আগেই ওই বাসের অন্য যাত্রীদের নামিয়ে বাস আবার নবীনগরের দিকে যায় অভিযুক্তরা। পথে বাসের দরজা জানালা বন্ধ করে তাকে ধর্ষণ করে চালক ও হেলপারসহ অন্যরা। রাত প্রায় এগারটার দিকে আশুলিয়া ব্রিজ এলাকায় বাইপাস সড়কে বাসটিকে সন্দেহ হলে টহল পুলিশ ধাওয়া করে। এক পর্যায়ে বাসটিকে থামাতে সক্ষম হয় পুলিশ। পরে ওই তরুণীর অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্ত ছয়জনকে বাসসহ আটক করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। তিনি নিজেই মামলা করেছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ধর্ষণের শিকার তরুণীর মেডিকেল পরীক্ষা শেষ হয়েছে। শনিবার (২৯ মে) দুপুরে শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগে ওই তরুণীর মেডিকেল পরীক্ষা হয়। সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজের ফরেনসিক মেডিসিন বিভাগের প্রধান সেলিম রেজা বলেন, ভুক্তভোগী নারীর শারীরিক পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। ধর্ষণের বিষয়টি নিশ্চিত হতে এবং অভিযুক্তদের শনাক্ত করতে প্রয়োজনীয় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

জানা গেছে, ওই তরুণী মানিকগঞ্জে তার বোনের বাড়ি গিয়েছিলেন। সেখান থেকে শুক্রবার সন্ধ্যার পর ফিরতে গিয়েই এ ঘটনার শিকার হন তিনি। বাংলাদেশে এর আগেও চলন্ত বাসে তরুণীকে গণধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। ২০১৭ সালে একটি চলন্ত বাসে একজন তরুণীকে গণধর্ষণের পর তাকে ঘাড় মটকে হত্যা করে রাস্তার পাশে ফেলে দেয়ার ঘটনা বাংলাদেশে মারাত্মক আলোড়ণ সৃষ্টি করেছিল।

এর আগে ২০১৩ ভারতের দিল্লীতে চলন্ত বাসে নির্ভয়া হত্যাকান্ড ও ধর্ষণের ঘটনা বিশ্বজুড়ে আলোচনার ঝড় তুলেছিল।