কুষ্টিয়ায় স্বরূপে ফিরেছে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য

4

দুর্বৃত্তরা কুষ্টিয়া শহরের পাঁচ রাস্তার মোড়ে নির্মাণাধীন বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের হাতসহ তর্জনী ভেঙে দিয়েছিল। আঘাত করা হয়েছিল মাথায় ও মুখে। সংস্কার করে আবার নির্মাণ করা হয়েছে ভেঙে যাওয়া হাত, তর্জনী ও মুখের অংশ। প্রথম আলো’র খবরে একথা জানানো হয়েছে।

শুধু তা-ই নয়, সেখানে স্থাপন করা হয়েছে আরও দুটি ভাস্কর্য। ভাস্কর জামাল মাহবুব শামীম বলছেন, আগামি কয়েক দিনের মধ্যে তিনটি ভাস্কর্যের পুরো কাজ শেষ হয়ে যাবে।

গত ৪ ডিসেম্বর দিবাগত রাতে ৭ মার্চের ভাষণ দেওয়ার আদলে নির্মাণাধীন বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যে আঘাত হানে দুর্বৃত্তরা। ওই ঘটনায় থানায় মামলা হলে পুলিশ চারজনকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠায়। তাদের মধ্যে দুজন মাদ্রাসা ছাত্র ভাস্কর্য ভাঙচুরের ঘটনা স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেয়।

বুধবার (৬ জানুয়ারি) সকালে পাঁচ রাস্তার মোড়ে গিয়ে দেখা গেল, ভাস্কর জামাল মাহবুব তিনজন শ্রমিক নিয়ে ভাস্কর্যের শেষ কাজ করছেন। শহরের এই ভাস্কর্যগুলোর কাজ প্রায় শেষের দিকে। জামাল মাহবুব জানান, ভেঙে যাওয়া হাত ও তর্জনী পুনরায় স্থাপন করা হয়েছে। একই সঙ্গে মুখের অংশও স্থাপন করা হয়েছে। এখন ফিনিশিংয়ের কাজ চলছে।

কুষ্টিয়া পৌরসভার অর্থায়নে শহরের পাঁচ রাস্তার মোড়ে তিনটি প্রধান সড়কের দিকে মুখ করে বঙ্গবন্ধুর তিনটি ভাস্কর্য নির্মাণ করা হচ্ছে। নিচের দিকে জাতীয় চার নেতার ম্যুরালও থাকবে। মজমপুর এলাকার দিকে মুখ করা ৭ মার্চের ভাষণের ভাস্কর্যটির কিছু অংশ ৪ ডিসেম্বর রাতে দুর্বৃত্তরা ভেঙে দেয়। এরপর সারা দেশে প্রতিবাদের ঝড় ওঠে।