ঐক্য পরিষদের বিবৃতি একদিকে ভিন্ন ধর্মের বিরুদ্ধে অব্যাহত অপপ্রচার, অন্যদিকে ধর্ম অবমাননার কথিত দায়ে হিন্দু ছাত্রদের ছাত্রত্ব বাতিল এ কিসের আলামত ?

44

।। নিজস্ব বার্তা পরিবেশক।। একদিকে সামাজিক গণমাধ্যমে ভিন্ন ধর্মের বিরুদ্ধে অব্যাহত অবমাননাকর অপপ্রচার, অন্যদিকে ফেসবুক আইডি হ্যাক করে ভুয়া পোস্টিং-র মাধ্যমে ধর্ম অবমাননার জিগির তুলে দিনাজপুরের পার্বতীপুর ও কুমিল্লার মুরাদনগরের সংখ্যালঘু এলাকায় আক্রমণ, অগ্নিসংযোগ, নারী নির্যাতন ও ভিকটিমদের গ্রেফতারের পাশাপাশি গত ২৬ অক্টোবর থেকে ২৮ অক্টোবরের মধ্যে দেশের তিনটি বিশ^বিদ্যালয় ও কলেজ থেকে ছয়জন ছাত্রের ছাত্রত্ব সাময়িক বাতিলসহ তাদের উপর কারণ দর্শানোর নোটিশ জারির ঘটনা, চট্টগ্রাম বিশ^বিদ্যালয়ের অধ্যাপক কুশল বরণ চক্রবর্তীকে হত্যার হুমকির ঘটনায় তীব্র উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ। পরিষদ একই সাথে ধর্ম অবমাননার কথিত দায়ে গত ২৯ অক্টোবর লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারীতে আবু ইউনুস মোঃ শহিদুন্নবী নামের এক ধর্মপ্রাণ বয়স্ক ব্যাক্তিকে পিটিয়ে ও পুড়িয়ে হত্যার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে।

পরিষদ মনে করে, দেশের সামগ্রিক পরিস্থিতিকে অস্থিতিশীল করার কু-অভিপ্রায়ে সাম্প্রদায়িক মহলবিশেষের এ এক পরিকল্পিত ঘৃণ্য অভিসন্ধি। অনতিবিলম্বে সরকার এ ব্যাপারে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ না করলে ভয়াবহ পরিস্থিতি সৃষ্টি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট রানা দাশগুপ্ত এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, যে ছয়জন ছাত্রকে এরই মধ্যে ধর্ম অবমাননার কথিত দায়ে ছাত্রত্ব সাময়িক বাতিল করে কারণ দর্শানোর নোটিশ জারি করা হয়েছে তারা হলেন- নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের ইএসডিএম ও ফার্মেসী বিভাগের দুজন প্রান্তিক মজুমদার ও দীপ্ত পাল, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষ ফাইন্যান্স ও ব্যাংকিং  বিভাগের ছাত্র মিথুন মন্ডল, ঢাকার জগন্নাথ বিশ^বিদ্যালয়ের তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী তিথি সরকার, পার্বতীপুর আদর্শ ডিগ্রি কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্রী দীপ্তি রানী রবিদাশ, ফেনীর বেসরকারী বিশ^বিদ্যালয়ের গবেষক মিথুন দে। এদের মধ্যে মিথুন মন্ডলকে সাতক্ষীরার দেবহাটার গ্রামের বাড়ি, দীপ্তি রবিদাশকে তার পার্বতীপুরের গ্রামের বাড়ি, মিথুন দে কে ফেনী থেকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। অন্যদিকে তিথি সরকার গত ২৮ অক্টোবর থেকে নিখোঁজ রয়েছে। কোথাও থেকে তার সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে না। অনতিবিলম্বে তিথি সরকারকে উদ্ধারে পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য এ্যাডভোকেট রানা দাশগুপ্ত সরকারের প্রতি জোর দাবি জানিয়েছেন।

মুরাদনগরে ঐক্য পরিষদের প্রতিনিধিদল

বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক, সাবেক রাষ্ট্রদূত অধ্যাপক ড. নিমচন্দ্র ভৌমিকের নেতৃত্বে চার সদস্য বিশিষ্ট এক প্রতিনিধিদল সোমবার (২ নভেম্বর) সকালে কুমিল্লার মুরাদনগরে ঘটনাস্থল সরেজমিনে পরিদর্শনের জন্য গিয়েছেন। প্রতিনিধিদলে রয়েছেন বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি মিলন কান্তি দত্ত ও সাধারণ সম্পাদক নির্মল কুমার চ্যাটার্জি এবং বাংলাদেশ বুড্ডিস্ট ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ভিক্ষু সুনন্দপ্রিয়।