এবার আরেক টিকা ভারতে, তৃতীয় ট্রায়ালের প্রস্তুতি

5

ডেস্ক রিপোর্ট।। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের ধাক্কায় রীতিমতো থরহরি কম্প ভারত। দৈনিক সংক্রমণের নিরিখে নতুন নতুন রেকর্ড তৈরি হচ্ছে এদেশে। ভাইরাস মোকাবিলায় টিকাকরণে জোর দেওয়া হচ্ছে। কোভিশিল্ড, কোভ্যাক্সিনের পর ক’দিন আগে রাশিয়ার ভ্যাকসিন স্পুটনিক ভি-কে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এবার আরও এক ‘মেড ইন ইন্ডিয়া’ ভ্যাকসিন পেতে চলেছে ভারত। চলতি বছরের অগাস্টের মধ্যেই দেশের হাতে মিলতে পারে হায়দরাবাদের বায়োলজিক্যাল ই ভ্যাকসিন। জানা যাচ্ছে, প্রথম ও দ্বিতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল সম্পন্ন হয়েছে। তৃতীয় ট্রায়ালের জন্য তৈরি হায়দরাবাদের বায়োলজিক্যাল ই ভ্যাকসিন।

এই প্রসঙ্গে নীতি আয়োগের সদস্য ডা. ভি কে পাল বলেছেন, ভারতে তৈরি ভ্যাকসিন বায়োলজিক্যাল ই-র প্রথম ও দ্বিতীয় দফার ট্রায়াল শেষ হয়েছে। শীঘ্রই টিকার তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল শুরু হবে।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে দেশে টিকাকরণ শুরু হয়েছে। এই মুহূর্তে ভারতে অক্সফোর্ডের কোভিশিল্ড ও ভারত বায়োটেকের কো-ভ্যাক্সিন দেওয়া হচ্ছে। যে হারে করোনা বাড়ছে তাতে দেশের কোথাও কোথাও ভ্যাকসিনের ঘাটতি হওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। এই প্রেক্ষিতে রুশ ভ্যাকসিন স্পুটনিক ভি-কে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি দেশে তৈরি আরও এক টিকার যে খবর মিলল, তাতে করোনা দূরীকরণে উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ বলে মনে করা হচ্ছে।

এদিকে, করোনাভাইরাসের (কোভিট ১৯)-এর একাধিক প্রজাতির বিরুদ্ধে লড়াই চালাতে পারবে কোভ্যাক্সিন।  আইসিএমআর -র গবেষণায় দেখা গিয়েছে, করোনার একাধিক প্রজাতিকে বিনাশ করতে পারবে কোভ্যাক্সিন। যে হারে দেশজুড়ে সংক্রমণ ছড়াচ্ছে, তাতে কোভ্যাক্সিনের কার্যক্ষমতা নিয়ে যে তথ্য তুলে ধরল  আইসিএমআর, তাতে আশার আলো দেখা গেল বলে মনে করছে সংশ্লিষ্ট মহলের একাংশ।

আগামি ১ মে থেকে ১৮ বছর ঊর্ধ্ব সকলকে ভ্যাকসিন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মোদী সরকার। এরপর থেকেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছিল কত টাকা হতে চলেছে করোনা টিকার দাম ? শেষমেশ টিকার দাম নির্ধারিত করল সেরাম ইনস্টিটিউট। সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের তরফে জানানো হয়েছে, রাজ্য সরকারগুলিকে কোভিশিল্ড দেওয়া হবে ৪০০ টাকায় এবং বেসরকারি হাসপাতালে এই টিকা পাওয়া যাবে ৬০০ টাকায়। কেন্দ্রকে ১৫০ টাকা প্রতি ডোজ মূল্যে কোভিশিল্ড টিকা সরবরাহ জারি রাখবে সেরাম।