একাত্তরের পরাজিত শক্তি মাথা তুলছে, সচেতন নাগরিক কমিটির সভায় হুঁশিয়ারি

13

।। নিজস্ব বার্তা পরিবেশক ।। বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে বাংলাদেশ সচেতন নাগরিক কমিটি আয়োজিত এক আলোচনা সভায় বঙ্গবন্ধুর প্রদর্শিত পথে ধর্মনিরপেক্ষ গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার প্রত্যয় ঘোষণা করা হয়। বক্তারা বলেন, আজ পরাজিত শক্তি মাথা তুলে দাঁড়িয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধ ধ্বংস করার ষড়যন্ত্র করছে। যে কোনো মূল্যে তা প্রতিহত করতে হবে।

বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে শনিবার ৯ জানুয়ারি আয়োজিত এ সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক ড. নিমচন্দ্র ভৌমিক। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি অংশগ্রহণ করেন বর্ষীয়ান রাজনীতিক ও ১৪ দলের সম্মানিত সমন্বয়ক আমির হোসেন আমু এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি বক্তব্য প্রদান করেন জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু এমপি। সংগঠনের সদস্য সচিব বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক ড. এম ফজলে আলীর সঞ্চালনায় আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন পেশাজীবী পরিষদের মহাসচিব অধ্যাপক কামরুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ সালাউদ্দিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদ পাটোয়ারী, বিশিষ্ট সাংবাদিক বাসুদেব ধর, বাংলাদেশ খ্রিস্টান এসোসিয়েশনের সভাপতি নির্মল রোজারিও এবং অন্যান্য বিশিষ্ট রাজনীতিক, বুদ্ধিজীবী ও পেশাজীবী নেতৃবৃন্দ।

আমির হোসেন আমু বলেন, জাতির জনক ভারতসহ গণতান্ত্রিক বিশ্বের নেতৃবৃন্দ ও গণমানুষের প্রবল চাপের মুখে পাকিস্তানের কারাগার থেকে নিঃশর্ত মুক্তিলাভ করে ১০ জানুয়ারি স্বাধীন বাংলাদেশ প্রত্যাবর্তন করেই সরাসরি সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অপেক্ষমাণ লক্ষ লক্ষ জনতার সামনে উপস্থিত হয়ে অশ্রুসিক্ত নয়নে দেশবাসীর নিকট কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং ৩০ লক্ষ শহীদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত এ স্বাধীন দেশকে কিভাবে সকলের সহায়তায় বিশ্ব মানচিত্রে একটি অনন্য সাধারণ ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত দেশ হিসেবে গড়ে তুলবেন তার রূপকল্প তুলে ধরেন।

আলোচনা সভার বিশেষ অতিথি জাসদের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সাবেক মন্ত্রী হাসানুল হক ইনু রক্তের বিনিময়ে অর্জিত এ স্বাধীনতাকে বিপন্ন করার জন্য স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি আজও সোচ্চার এবং এরা দেশে সন্ত্রাস, নৈরাজ্য, জঙ্গীবাদের মাধ্যমে দেশকে অস্থিতিশীল করার জন্য আজও ষড়যন্ত্র করছে বলে উল্লেখ করেন। এদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

সভাপতির বক্তৃতায় ড. ভৌমিক বলেন যে, স্বাধীনতাবিরোধীরা বিভিন্নভাবে আজও ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়নের মাধ্যমে এদেরকে রুখতে হবে। তা নাহলে দেশের সকল উন্নয়ন স্থবির হয়ে দেশ এক মহাসংকটে নিপতিত হবে।