উহানে পরিত্যক্ত তামার খনি থেকেই করোনাভাইরাস ছড়িয়েছে ?

5

ডেস্ক রিপোর্ট ।। করোনাভাইরাসের উৎস নিয়ে তদন্ত এখনো চলমান। পশ্চিমা রাষ্ট্রগুলোর দাবি উহানে অবস্থিত সেই উহান ইনিস্টিটিউট অব ভাইরোলজি থেকেই প্রথম ছড়িয়েছে ভাইরাসটি। এর প্রেক্ষিতে নানা যুক্তিও দেখাচ্ছে তারা। এবার সে দাবির প্রেক্ষিতে সামনে এলো এক নতুন তথ্য।

জানা যায়, উহানে অবস্থিত একটি পরিত্যক্ত তামার খনি থেকেই ভাইরাসটির প্রথম সন্ধান মেলে। ২০১২ সালে খনির ৬ জন শ্রমিকের অজানা রোগে মৃত্যু হয়। খনি থেকে বাদুর সরানোর কাজ করার সময় অসুস্থ হয় তারা। এরপরেই তাদের মৃত্যু হয়। সেই ঘটনার পর উহান ইনিস্টিটিউট অব ভাইরোলজির গবেষকরা ঘটনার তদন্ত করেন। তারা খনির বাদুর থেকে বিভিন্ন নমুনা সংগ্রহ করেন। তখন বিভিন্ন ধরণের করোনাভাইরাসের সন্ধান মেলে। সেসব নমুনা ল্যাবে সংগৃহীত আছে। ভাইরাসটি হয়তো সেখান থেকেই ছড়িয়েছে।

করোনাভাইরাস বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ার পর থেকেই উহানের সেই ল্যাবের দিকে অভিযোগের তীর ছুড়ছেন সবাই। যদিও এখন পর্যন্ত ল্যাবের গবেষক ও কর্মকর্তা এ বিষয়ে যথাযথ তথ্য সরবরাহ করেননি। অন্যদিকে ভাইরাসটির উৎস খুজে বের করতে আরও গভীর তদন্তের আহ্বান জানিয়ে আসছে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) জানিয়েছে, উহানের সেই ল্যাব নিয়ে তারা তদন্ত করার চেষ্টা করেছে। কিন্তু ল্যাব কর্তৃপক্ষ তাদের পর্যাপ্ত তথ্য দেয়নি এবং তদন্তের জন্য কোনো সাহায্য করেনি। ল্যাবের অনেকাংশে প্রবেশ করার অনুমতিও পায়নি ডব্লিউএইচও’র কর্মকর্তারা।